ওয়াই ফাই সম্পর্কে ১0 টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

0
526
ছবি (ওয়েব)

ছবি (ওয়েব)

  1. Wireless Fidelity – WiFi রেডিও ওয়েব এর মাধ্যমে একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইসকে উচ্চগতি সম্পন্ন ইন্টারনেট কানেকশন দিতে পারে।
  2. প্রযুক্তিগত ভাবে IEEE 802.11B নামে পরিচিত।
  3. ওয়াই ফাই এলায়েন্স হল একটি বিশ্বব্যপী প্রতিষ্ঠানের দল যা ডব্লিউ এল এ এন প্রযুক্তি বিস্তার করে এবং ইন্টেরোপেরাবিলিটির আদর্শ সমন্বিত ডিভাইসকে প্রত্যয়ন করে।
  4. কোন ডিভাইসে ওয়াই ফাই লাগানো না থাকা মানে এই না যে ডিভাইসটি ওয়াই ফাই সমর্থন করে না।
  5. অনেক সময় খরচ কমানোর জন্য সকল ৮০২.১১-উপযোগী ডিভাইস ওয়াই ফাই এলায়েন্স প্রত্যয়নের জন্য দেয়া হয় না।
  6. সাধারণত সকল ল্যাপটপ, পেরিফেরাল ডিভাইস, প্রিন্টার, স্মার্ট ফোন, এম পি থ্রী প্লেয়ার, ভিডিও গেম কনসোল এবং ব্যক্তিগত কম্পিউটারে ব্যবহার করা যায়।
  7. ২০০৯ সালের এপ্রিলে,ইন্টেল, মাইক্রোসফট, এইচপি,ডেল সহ ১৪ টি প্রযুক্তি ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান এই কৃতিস্বত্ব ব্যবহার করার জন্য সি এস আই আর ও কে ২৫০ মিলিয়ন ইউ এস ডলার প্রদান করতে সম্মত হয়।
  8. ভিক হেয়েস প্রাথমিক ৮০২.১১বি এবং ৮০২.১১এ আদর্শ নকশাকারীদের মধ্যে একজন, তিনি ওয়াই ফাই এর জনক নামে পরিচিত এবং তিনি ১০ বসর আই ই ই ই ৮০২.১১ এর প্রধান ছিলেন।
  9. ইউ এস ফেডারেল কমিউনিকেশন কমিশন কর্তৃক রেডিও বর্ণালির কিছু ব্যান্ড উন্মুক্ত করার মাধ্যমে ওয়াই ফাই প্রযুক্তির যাত্রা শুরু হয় ১৯৮৫ সালে। ১৯৯১ সালে এন সি আর কর্পোরেশন/এ টি এন্ড টি নিউওয়েজিন, নরওয়েতে ওয়াই ফাই/৮০২.১১ এর পূর্ব লক্ষণ আবিষ্কার করে।
  10. ১৯৯২ সালে কমনওয়েলথ সায়েন্টিফিক এন্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ অরগানাইজেশন (সি এস আই আর ও) তারহীন তথ্য স্থানান্তরের জন্য কৃতিত্ব লাভ করে অস্ট্রেলিয়াতে। ১৯৯৬ সালে একই বিষয়ে ইউ এস এ তারা কৃতিত্ব লাভ করে। ওয়াই ফাই ওই কৃতিত্বর গাণিতিক সূত্রসমূহ ব্যবহার করে। ২০০৯ সালের এপ্রিলে,ইন্টেল, মাইক্রোসফট, এইচপি,ডেল সহ ১৪ টি প্রযুক্তি ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান এই কৃতিস্বত্ব ব্যবহার করার জন্য সি এস আই আর ও কে ২৫০ মিলিয়ন ইউ এস ডলার প্রদান করতে সম্মত হয়।

তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট হতে সংগৃহীত